মা হলেন জনপ্রিয় উপস্থাপিকা, মডেল ও অভিনেত্রী পিয়া জান্নাতুল। আজ রবিবার বিকাল ৩টা ৪৭ মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে পুত্র সন্তানের জন্ম দেন তিনি।

প্রথম আলোকে বাবা হওয়ার অনুভূতি জানিয়ে ফারুক বলেন, ‘আসলেই খুবই ইমোশনাল মুহূর্ত। যখন বাচ্চাটাকে আমার কোলে দিল, ও তো আমাকে দেখেই একটা চিৎকার দিল (কান্না করল)। আমি ওর হার্টবিট ফিল করলাম। ও খুবই অ্যাক্টিভ। এই কাঁদছে, হাত পা ছুড়ছে। খুব মিষ্টি দেখতে হয়েছে। এই অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। কী যে ভালো লাগছে আর ভয় ভয় লাগছে। আমরা ওর নাম ঠিক করেছি অ্যারিস হাসান। আমি শিওর, অ্যারিস পিয়ার মতোই দুষ্টু হয়েছে।’

২০০৭ সালে মিস বাংলাদেশ হন পিয়া জান্নাতুল। এরপর থেকেই শোবিজের নানা মাধ্যমে নিজেকে মেলে ধরেছেন পিয়া। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্বখ্যাত ‘ভোগ’ সাময়িকীর (ভারত সংস্করণ) প্রচ্ছদের মডেল হন তিনি। মডেল হিসেবে কাজ করেছেন নামকরা সব ব্র্যান্ডের সাথে। ২০১২ সালে রেদোয়ান রনির ‘চোরাবালি’ সিনেমায় অভিনয় করে প্রশংসিত হন পিয়া। এরপর আরও কিছু সিনেমা, নাটক ও মিউজিক ভিডিওতে দেখা গেছে তাকে। 

উপস্থাপক পিয়া জান্নাতুল
২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে পিয়া

উপস্থাপক হিসেবেও পেয়েছেন সাফল্য। দুই মৌসুমে বিপিএল উপস্থাপনার পর আইসিসি ২০১৯ ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপেও কাজ করেছেন উপস্থাপক হিসেবে। এত কিছুর ভিড়ে নিজের পড়াশোনাটাও শেষ করেছেন সাফল্যের সাথে। ঢাকার লন্ডন কলেজ অব লিগ্যাল স্টাডিজ থেকে আইন বিষয়ে পড়াশোনা শেষ করেছেন তিনি। 

গর্ভাবস্থায় ফটোশ্যুট করে আলোচিত হন পিয়া

গর্ভবতী অবস্থায়ও সমানতালে কাজ করেছেন পিয়া। তার বেবি বাম্প ফটোশ্যুট আলোড়ন তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায়। স্বভাবতই অজস্র নেতিবাচক কমেন্টে বিদ্ধ হতে হয়েছে তাকে। কিন্তু সেসব পিয়াকে রুখতে পারেনি। তিনি লিখেছিলেন, ‘মা হতে যাওয়ার এ যাত্রা খুব সাহসী একটি ব্যাপার। এ সময় মায়ের শরীর রূপান্তরিত হয়। আর পৃথিবীতে নতুন একটি জীবন আনার মতো বিস্ময়কর ঘটনা ঘটাতে তার একজন যোদ্ধার মতোই মানসিকতা তৈরি হয়। তাকে অবশ্যই উদযাপন করা উচিত। মাথা উঁচু করে তার শারীরিক পরিবর্তন নিয়ে গর্ব করা উচিত।’    


শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা